মার্কিন হামলায় ইরাকি কমান্ডারসহ নিহত ৬

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই মার্কিন কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানান, যুক্তরাষ্ট্রই টার্গেট লক্ষ্য করে ওই বিমান হামলা চালিয়েছে

আন্তর্জাতিক

ইরাকের রাজধানী বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে একাধিক রকেট হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ওই হামলায় ইরাকের এলিট বাহিনী কুদসের প্রধান জেনারেল কাসেম সুলায়মানিসহ ছয়জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বগদাদের মার্কিন দূতাবাসে হামলার জের ধরে এই হামলা চালালো যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবারের ওই হামলার পর বুধবার জনসাধারণের জন্য  দূতাবাসের কনস্যুলার সেবা বন্ধ করা হয়েছে। 

ইরাকি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা জানায়, সুলায়মানি ছাড়াও ওই হামলায় ইরানের মদদপুষ্ট ইরাকি মিলিশিয়া বাহিনী পপুলার মবিলাইজেশন ফোর্সেস (পিএমএফ)’র কমান্ডার আবুদ মাহদি আল মুহান্দিস নিহত হয়েছেন।

পিএমএফ’র মুখপাত্র আহমেদ আল-আসাদিও সোলাইমানি ও মুহান্দিসের নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন

আহমেদ আল-আসাদি আরো বলেন, আমেরিকা ও ইসরায়েলি শত্রুরা সোলাইমানি ও মুহান্দিস হত্যার জন্য দায়ী।

এছাড়া নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই মার্কিন কর্মকর্তা সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানান, যুক্তরাষ্ট্রই টার্গেট লক্ষ্য করে ওই বিমান হামলা চালিয়েছে।

এদিকে ইরানভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম পার্সটুডে জানায়, অজ্ঞাত অবস্থান থেকে বিমানবন্দর লক্ষ্য করে অন্তত চারটি রকেট নিক্ষেপ করা হয়। এর ফলে সেখান মোতায়েন জনপ্রিয় স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী হাশদ আশ-শাবির (পিএমএফ) অন্তত পাঁচ জওয়ান নিহত হয়েছেন। বিমানবন্দরে মোতায়েন হাশদ আশ-শাবির দু’টি গাড়ি লক্ষ্য করে রকেট হামলা চালানো হয়। অবশ্য কোনো কোনো সূত্র জানিয়েছে, মার্কিন হেলিকপ্টার থেকে রকেটগুলো নিক্ষেপ করা হয়েছে।

এর আগে গত রোববার ইরাক ও সিরিয়ায় ইরানপন্থী স্বেচ্চাসেবী বাহিনীর কয়েকটি ঘাঁটিতে ভয়াবহ বিমান হামলা চালিয়ে অন্তত ৩০ জওয়ানকে হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্র। এর প্রতিবাদে গত মঙ্গলবার ইরানপন্থী আধা সামরিক বাহিনী পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিটের (পিএমইউ) হাজার হাজার সমর্থক বাগদাদের সুরক্ষিত গ্রিন জোনের মার্কিন দূতাবাস ভবনে হামলা চালায়। এক পর্যায়ে দূতাবাসের প্রধান ফটক ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করে বিক্ষুব্ধ জনতা। এরপর তারা দূতাবাসের অভ্যর্থণা অংশে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং সেখানে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। বিক্ষুব্ধ বিক্ষোভকারীরা মার্কিন পতাকাতেও আগুন দেয়। তারা যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে নানা স্লোগান দেয়।

এসময় দূতাবাসের অভ্যন্তরে থাকা নিরাপত্তা সদস্যরা বিক্ষোভকারীদের ওপর টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে। এতে কমপক্ষে ২০ বিক্ষোভকারী আহত হন বলে জানিয়েছে পিএমই।

এরপর মঙ্গলবার সারাদিন ধরে দূতাবাস অবরোধ করে রাখে ক্রুদ্ধ বিক্ষোভকারীরা। কিন্তু বুধবার পিএমইউ নেতাদের ডাকে সাড়া দিয়ে তারা অবরোধ তুলে নেয় এবং দূতাবাস ছেড়ে চলে যায়। কিন্তু এই বিক্ষোভের ঘটনায় দূতাবাসের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

বুধবার এক বিবৃতিতে মার্কিন দূতাবাস জানিয়েছে, দূতাবাস কম্পাউন্ডে গেরিলাদের হামলার কারণে সমস্ত কনস্যুলার সার্ভিস বন্ধ করা হলো এবং পরবর্তী নোটিশ না দেয়া পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে। মার্কিন নাগরিকদেরও দূতাবাস ভবনে না আসার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

এদিকে দূতাবাসে হামলার পর ইরাকে আরো সাড়ে ৭শ মার্কিন সেনা মোতায়েন করার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এমএ/

© Bangladesh Journal


from BD-JOURNAL https://www.bd-journal.com/international/101787/মার্কিন-হামলায়-ইরাকি-কমান্ডারসহ-নিহত-৬
Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: