যশোরে গণপিটুনিতে নিহত ২

নিজস্ব প্রতিবেদক

যশোরের ঝিকরগাছায় গণপটুনিতে দুইজন নিহত হয়েছেন।

বুধবার রাতে উপজেলার চন্দ্রপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, গরু চুরি করে নিয়ে যাওয়ার সময় লোকজন তাদের গণপিটুনি দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই দুজন নিহত হন।

 

বিস্তারিত আসছে…



যশোর/রিটন/ইভা



from Risingbd Bangla News https://ift.tt/2RG1vUR

৫৭ বছর পর ওল্ড ট্রাফোর্ডে বার্নলির কাছে হার ম্যানইউর

ক্রীড়া ডেস্ক

৫৭ বছর পর ওল্ড ট্রাফোর্ডে বার্নলির কাছে হারের শিকার হল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। বুধবার রাতে ঘরের মাঠে ২-০ গোলের হার দেখে ম্যানইউ। এদিকে টানা চার হারের পর দুই ম্যাচ জিতলো বার্নলি। নিজেদের শেষ ম্যাচে লেস্টার সিটিকে ২-১ গোলে হারায় দলটি।

চলতি মৌসুমে উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে চলছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রিমিয়ার লিগ যাত্রা। জয়-পরাজয় যেনো পাল্লা দিয়ে চলছে। লিগে এখন পর্যন্ত ৯ জয়ের পাশাপাশি হার আছে ৮টি। শেষ পাঁচ ম্যাচে দুই জয়ের বিপক্ষে হারে ৩টিতে। নরউইচ সিটির বিপক্ষে জেতার পর টানা দুই ম্যাচ হারলো ওলে গানার সুলশারের দল। লিভারপুলের কাছে ২-০ গোলে হারের পর একই ব্যবধানে হারলো বার্নলির কাছেও।

প্রিমিয়ার লিগের প্রথম লেগে বার্নলির মাঠে ২-০ গোলের জয় পায় সুলশারের শিষ্যরা। ওল্ড ট্রাফোর্ডেও ফেভারিট হিসেবে মাঠে নামে তারা। ম্যাচের শুরু থেকে আধিপত্য দেখিয়ে খেলতে থাকে রেড ডেভিলরা। কিছু দারুণ সুযোগ নষ্ট করেন আঁতনি মার্শিয়াল ও হুয়ান মাতা। তবে খেলার ধারার বিপরীতে ৩৯ মিনিটে গোল করে বসে বার্নলি। নিউজিল্যান্ডের ফরোয়ার্ড ক্রিস উড এগিয়ে দেন সফরকারিদের।

ম্যাচে আক্রমণ, বল দখলে ম্যানইউ এগিয়ে থাকলেও গোল শোধ করতে পারেনি। উল্টো ৫৬ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বার্নলি। গোল করা উডের পাস থেকে গোল করেন জে রদ্রিগেজ। খেলার অন্তিম মুহূর্তে ম্যানইউয়ের লুক শ বল জালে জড়িয়েছিলেন। কিন্তু ডিফেন্ডারকে ফাউল করায় গোল দেননি রেফারি।

ওল্ড ট্রাফোর্ডে ১৫ ম্যাচ পর জিতলো বার্নলি। এ জয়ে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার ১৩তম স্থানে উঠে এসেছে দলটি। এদিকে ম্যানইউর সঙ্গে চুক্তি সম্পন্ন করার পর ১১ ম্যাচে জয়ের বিপরীতে ১২টি হার দেখেছে ওলে গানার সুলশার। এ হারে তার দল ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে অবস্থান করছে।


ঢাকা/কামরুল



from Risingbd Bangla News https://ift.tt/2GicDSx

চবি শাটল ট্রেন বন্ধ করে দিয়েছে ছাত্রলীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

দুই গ্রুপের মারামারির জের ধরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে ছাত্রলীগের একাংশ।

বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৮টার দিকে ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক সংগঠন বিজয় গ্রুপের নেতাকর্মীরা নগরীর ষোলশহর স্টেশনে অবস্থান নিয়ে শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়।

এর আগে বুধবার বিজয় গ্রুপের নেতার ওপর হামলার অভিযোগ তুলে সিএফসি গ্রুপের নেতা রেজাউল হক শামিমকে গ্রেপ্তারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে অবরোধের ডাক দেয়।

ছাত্রলীগের বিজয় গ্রুপের নেতা ও চবি শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইলিয়াস রাইজিংবিডিকে জানান, আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এবং হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে অবরোধের ডাক দেয়া হয়েছে। অবরোধ কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল থেকে চট্টগ্রাম নগরী থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে চলাচলকারী শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার বিকেলে ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক সংগঠক সিএফসি গ্রুপ ও বিজয় গ্রুপের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে মারামারির ঘটনা ঘটে। দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি হালায় কমপক্ষে তিনজন আহত হন


চট্টগ্রাম/রেজাউল/বুলাকী



from Risingbd Bangla News https://ift.tt/30K5G68

গৃহ নির্মাণ ঋণে সাড়া কম, সহজ হচ্ছে কিস্তি পরিশোধ

কেএমএ হাসনাত

সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য গৃহ নির্মাণ ঋণের সুদের হার ১০ শতাংশ থেকে ৯ শতাংশ করার পরও তেমন সাড়া মেলেনি।

এ কারণে গৃহ নির্মাণ ঋণ কার্যক্রমের বিষয়ে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে উৎসাহ সৃষ্টি করার জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

সহজ করা হচ্ছে ঋণ ও কিস্তি পরিশোধ কার্যক্রম। এই উদ্যোগের অংশ হিসেবে এখন থেকে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বাসা ভাড়াকে ঋণের কিস্তি হিসেবে বিবেচনা করা হবে।

সরকারি চাকরিজীবীদের সহজ শর্তে গৃহনির্মাণ ঋণ বিতরণের সিদ্ধান্ত নেয়ার পর প্রায় দেড় বছর কেটে গেছে। এরমধ্যে মাত্র ৩০০ চাকরিজীবী এ সুযোগ নিয়েছেন। এ অবস্থায় ঋণ কার্যক্রম আরো কার্যকর করে তুলতে নানা উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ঋণ বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রত্যেক শাখায় গৃহ নির্মাণ ঋণ সংক্রান্ত ডেস্ক স্থাপন করা হবে এবং সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলোর শাখায় গৃহ নির্মাণ ঋণ সংক্রান্ত ব্যানার/ফেস্টুন প্রদর্শন করে ব্যাপক প্রচারণা চালানো হবে।

সূত্র জানায়, সরকারি কর্মচারীদের জন্য ব্যাংকিং ব্যবস্থার মাধ্যমে গৃহ নির্মাণ ঋণ প্রদান নীতিমালার আওতায় এই কার্যক্রমের অগ্রগতি নিয়ে এক বৈঠক সম্প্রতি অর্থ বিভাগে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই বৈঠকের কার্যবিরণীতে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। খুব শিগগিরই এ বিষয়ে সার্কুলার জারি করা হবে।

বৈঠকে বলা হয়, এই কার্যক্রম এখন পর্যন্ত আশানুরূপ পর্যায়ে পৌঁছতে সক্ষম হয়নি। আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের টার্গেট অনুযায়ী এই পর্যন্ত প্রাপ্ত আবেদনের সংখ্যাও অপ্রতুল। গৃহ নির্মাণ ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে ঋণ কার্যক্রমে গতিশীলতা আনা, গ্রাহক সংখ্যা বাড়ানো এবং বিষয়টিকে আরো সহজ করার জন্য সভায় বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এই সিদ্ধান্তের মধ্যে রয়েছে-গৃহ নির্মাণ ঋণের কিস্তি সংক্রান্ত হিসাব এবং সরকার প্রদত্ত সুদ ভর্তুকি দেয়ার প্রক্রিয়াকে সহজ করার উদ্দেশ্যে প্রতি মাসের ৫ তারিখে ঋণের কিস্তি দেয়ার তারিখ নির্ধারণ করতে হবে। সরকারি কর্মচারিদের জন্য ব্যাংকিং ব্যবস্থার মাধ্যমে গৃহ নির্মাণ ঋণ কার্যক্রমের ওপর বাস্তবায়নকারী সংস্থাসমূহ তাদের প্রধান অফিস/জোনাল অফিসগুলোতে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে এক কর্মশালা আয়োজন করতে হবে।

উল্লেখ্য, স্বল্প সুদে সরকারি চাকরিজীবীদের গৃহঋণ কার্যক্রম ১ জুলাই ২০১৮ সাল থেকে শুরু করা হয়। এই ঋণের আওতায় এক কর্মকর্তা-কর্মচারিকে সর্বোচ্চ ৭৫ লাখ এবং সর্বনিম্ন ২০ লাখ টাকা ঋণ দেয়া হচ্ছে।

এই কার্যক্রম শুরু থেকে গৃহ নির্মাণ ঋণের সুদের হার ছিল ১০ শতাংশ। এর মধ্যে ঋণ গ্রহীতা চাকরিজীবী দেবেন ৫ শতাংশ, বাকি ৫ শতাংশ সরকার থেকে ভর্তুকি দেয়া হবে। কিন্তু চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ঋণের সুদের হার ১ শতাংশ কমিয়ে ৯ শতাংশ করা হয়েছে। এই ৯ শতাংশের মধ্যে ঋণ গ্রহীতাকে আগের মত ৫ শতাংশ হারে সুদ দিতে হবে। বাকি ৪ শতাংশ সরকার পরিশোধ করবে। এ বছর থেকে যারা ঋণ নেবে শুধুমাত্র তারাই ৯ শতাংশ সুদে গৃহ নির্মাণ ঋণ পাবেন।

জানা গেছে, ১৪ লাখ সরকারি চাকরিজীবীদের গৃহনির্মাণ ঋণের সুবিধা দেয়ার কারণে এখাতে এক হাজার কোটি টাকা ভর্তুকির প্রয়োজন পড়বে। পাশাপাশি প্রায় দেড় হাজার বিচারকরা এর আওতায় আছেন। এবার নতুন করে যোগ হচ্ছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ হাজার শিক্ষকরা। ফলে ভতুর্কী দেড় হাজার কোটি টাকা ছাড়াতে পারে বলে অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।


ঢাকা/বুলাকী



from Risingbd Bangla News https://ift.tt/30KutXX

ধর্ম নিয়ে কটূক্তি, প্রাথমিক শিক্ষক আটক

বাংলাদেশ

জার্নাল ডেস্ক

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলায় ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করার দায়ে পিন্টু কুমার মজুমদার নামে এক স্কুলশিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (২২ জানুয়ারি) উপজেলার কুমিড়াদহ গ্রামে অভিযান চালিয়ে ওই স্কুলশিক্ষককে আটক করা হয়।

আটক পিন্টু কুমার মজুমদার উপজেলার কুমিড়াদহ গ্রামের চণ্ডি প্রশাদ মজুমদারের ছেলে ও রঘুনন্দনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

জানা যায়, বুধবার সকালে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম ও মুসলিম সম্প্রদায় নিয়ে উসকানিমূলক স্ট্যাটাস দেন পিন্টু কুমার মজুমদার। বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এরপর ফেসবুক থেকে তার পোস্টগুলো ডিলিট করে দেন তিনি। পরে রাতে স্থানীয়রা তার বাড়িটিতে হামলা চালায়।

শৈলকুপা সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম জানান, বিষয়টি জানার পর কুমিড়াদহ গ্রাম থেকে পিন্টু কুমার মজুমদারকে আটক করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

তিনি জানান, বর্তমানে ওই এলাকায় পুলিশ, সরকারদলীয় নেতাকর্মী, ছাত্রলীগ ও স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত রয়েছে। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখনও আটককৃতের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়নি।

বাংলাদেশ জার্নাল/কেআই

© Bangladesh Journal


from BD-JOURNAL https://www.bd-journal.com/bangladesh/104545/ধর্ম-নিয়ে-কটূক্তি-প্রাথমিক-শিক্ষক-আটক

‘একদিন সেই শিক্ষকদের বিরুদ্ধে মামলা করা যাবে’

এদের সমর্থক শিক্ষকদের বিরুদ্ধেও একদিন মামলা করার সুযোগ পাবেন। ১০-২০ বছর পর হলেও।

আসিফ নজরুল

ঢাবির জহুরুল হক হলে শিবির সন্দেহে কয়েকজনকে সারারাত অমানুষিকভাবে পিটিয়েছে ছাত্রলীগ। এটি বেআইনি ও সশ্রম কারাদণ্ডযোগ্য কাজ। এটি যারা করেছে সেই ছাত্রলীগের ছেলেদের পুলিশে দেয়া হয়নি। হলের দায়িত্বে থাকা ঢাবি শিক্ষকরা পুলিশে দিয়েছে যারা মার খেয়েছে উল্টো তাদের।

উল্লেখ্য, শিবির করা বাংলাদেশের কোন আইনে অপরাধ নয়। শিবির করে এ সন্দেহে কাউকে আটক, তল্লাশী, মারপিট সর্বোচ্চ ১৪ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডযোগ্য অপরাধ। কাউকে মেরে ফেলা মৃত্যুদণ্ডযোগ্য অপরাধ।

যাদের দায়িত্বহীনতা ও অবহেলার কারণে এসব নির্যাতন অবাধে করা যাচ্ছে, বিশ্ববিদ্যালয় হলগুলোর দায়িত্বে থাকা সেই শিক্ষকদের বিরুদ্ধেও ফৌজদারী মামলা করা যাবে। এধরনের মামলার কোন সময়সীমা নেই।

মনেপ্রাণে আশা করি, যারা অন্যায় মারের শিকার হচ্ছেন তারা শুধু নির্যাতকদের নয়, এদের সমর্থক শিক্ষকদের বিরুদ্ধেও একদিন মামলা করার সুযোগ পাবেন। ১০-২০ বছর পর হলেও।

© Bangladesh Journal


from BD-JOURNAL https://www.bd-journal.com/social-media/104544/একদিন-সেই-শিক্ষকদের-বিরুদ্ধে-মামলা-করা-যাবে