জুয়েল রানা, সখীপুর প্রতিনিধি : 


টাঙ্গাইলের সখীপুরে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট(জেডিসি) পরীক্ষায় প্রথম দিনে ১০১ জন শিক্ষার্থী অনুপস্থিত রয়েছে। ২ নভেম্বর শনিবার  জেএসসি বাংলা পরীক্ষায় ৩৩৬৭জন এবং জেডিসি’র কোরআন মাজিদ পরীক্ষায় ৮৪৮জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। অনুপস্থিত ১০১জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৬০জন মেয়ে শিক্ষার্থী রয়েছে। এদের মধ্যে জেএসসি ৪৫ জন এবং জেডিসি ১৫ জন। এসব পরীক্ষার্থীদের রেজিষ্ট্রেশন, প্রবেশপত্র এবং পরীক্ষার হলে সিটও পড়েছিল যথারীতি। কিন্তু পরীক্ষার আগে এসব শিক্ষার্থী নিজ বিদ্যালয় থেকে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করেনি। সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে খুঁজ নিয়ে জানা যায়, মেয়ে শিক্ষার্থীদের  বাল্য বিবাহই অনুপস্থিতির মূল কারণ।

কেজিকে উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিল্লাল হোসেন জানান, আমার বিদ্যালয়ের ২ জন মেয়ে অনুপস্থিত। খোঁজ নিয়ে জানলাম তাদের বিয়ে হয়ে গেছে।

হতেয়া এইচ এইচ ইউ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মজিদ  বলেন, দারিদ্রতা ও অসচেতনার কারনে অভিভাবকগন মেয়েদের গোপনে বিয়ে দিয়ে দেন। যে কারনে মেয়েদের অনুপস্থিতির হার বেশি। 

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. মফিজুল ইসলাম বলেন, পারিবারিক অস্বচ্ছলতা, অশিক্ষা ও বাল্যবিবাহ এসব কারণে মেয়েরা অনুপস্থিত।

Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: