স্টাফ রিপোর্টার :

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার খিলদা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বহিস্কারের দাবীতে স্কুলের ছাত্ররা দুই দিনে দফায় দফায় মিছিল, ক্লাশ বর্জন, সংঘর্ষে প্রায় ৮/৯জন আহত ও এক জনের অবস্থা আশংকা জনক। স্কুলের আসে পাশে পুরো এলাকা উত্তাল । বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

জানা যায়, ২৬ ফেব্রুয়ারি রবিবার সকাল ১০ টায় স্কুল চলাকালীন সময়ে প্রধান শিক্ষকের নেতৃত্বে কতিপয় বহিরাগতরা খিলদা স্কুলের ক্লাসরুমে ঢুকে ছাত্রদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় এক পর্যায়ে বহিরাগত ও ছাত্রদের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়লে স্কুলের ছাত্ররা প্রধান শিক্ষকের বহিস্কারের দাবীতে ক্লাশ বর্জন করে। পরে এদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। অল্প সময়ের মধ্যে পুরো এলাকায় সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়লে এতে প্রায় ৮/৯ জন ছাত্র আহত হয় এবং বহিরাগত এক শ্রমিকের অবস্থা আংশকাজনক। পরে কালিহাতী থানার ওসি খ.মো. আখেরুজ্জামান বিপুল সংখ্যক পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সোমবার সকাল ১১টায় ছাত্ররা বিভিন্ন গ্রাম থেকে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে স্কুলের মাঠে জড়ো হয় । পরে তারা একত্র হয়ে বিশাল মিছিল ও মানববন্ধন করতে থাকলে সংবাদ পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোজহারুল ইসলাম তালুকদার ছাত্রদের শান্ত হতে বলেন এবং এ বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখবেন বলে আশ্বাস দেন।

এ ব্যপারে প্রধান শিক্ষক বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্ররা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জানান, গুরুত্বের সহিত তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।

অফিসার ইনচার্জ  খ. মো. আখেরুজ্জামান জানান, অন্যায়কারী যে হোক তাকে ছাড় দেওয়া হবেনা। মিছিলে অংশ নেওয়া ছাত্ররা জানান, আমাদের হেড স্যার সব সময় বহিরাগত লোকজন দিয়ে মারপিট করে থাকে। বার বার প্রতিবাদ করে কোন লাভ হয় নাই। আমরা তার বহিস্কার দাবী করি।
Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: