টাঙ্গাইলদর্পণডটকম : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ বলেছেন, শুধু দেশের মানুষ নয়, বিদেশি কেউই এখন এদেশে নিরাপদ নন। এতে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হচ্ছে। তিনি সোমবার সকালে বনানীর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন।

এরশাদ বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি হয়েছে। নিরাপত্তা শঙ্কায় বিদেশি গার্মেন্টস ব্যবসায়ীরা এদেশে আসতে ভয় পাচ্ছেন। দেশের সর্বত্র চলছে সুশাসনের অভাব আর বিচারহীনতার সংস্কৃতি।’

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে আওয়ামী লীগের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের মাতাল অবস্থায় শিশু সৌরভকে গুলি করার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘শিশু সৌরভের জন্য আমরা কী বলব? বর্তমান সরকারের আমলে তো মায়ের গর্ভেও শিশু নিরাপদ নয়।’

সাবেক এই স্বৈরশাসক বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি ঘটেছে। সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়নের জন্য আমরা দাবি জানিয়েছিলাম। এমনকি রাজপথেও নেমেছিলাম। কিন্তু সরকার দেশের মানুষের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে।’

তিনি বর্তমান সরকারের আমলে প্রশাসনে ব্যাপক দলীয়করণের অভিযোগ করেন। বলেন, ‘প্রশাসনের দলীয়করণ বন্ধ করুন। প্রশাসনে অন্ধ দলীয়করণের কারণে সারাদেশে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে এরশাদ বলেন, ‘আমার দলের মন্ত্রীরা এবং আমি সময় হলেই সরকার থেকে বেরিয়ে আসব।’

তবে কবে নাগাদ সরকার থেকে তারা সরে আসতে পারেন সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি।

জাপা চেয়ারম্যান এ সময় মেডিকেল পরীক্ষা বাতিল করে সরকারের কাছে পুনরায় পরীক্ষা নেওয়ার আহ্বান জানান।

Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: