আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ইয়েমেনের হুথি আন্দোলন সমর্থিত সেনাবাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইয়াহিয়া সারিয়ি জানিয়েছেন, সীমান্তবর্তী সৌদি আরবের নাজরান প্রদেশে সম্প্রতি যে অভিযান চালানো হয়েছে তাতে সৌদি আরবের তিনটি সামরিক ঘাঁটি এবং ১৫০ বর্গকিলোমিটার এলাকা নিয়ন্ত্রণে নেয়া হয়েছে।


গতকাল (মঙ্গলবার) বিকেলে রাজধানীর সানায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি। জেনারেল সারিয়ি বলেন, এই অভিযান সম্পর্কে সম্প্রতি যে ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করা হয়েছে তাতে এসব এলাকায় ইয়েমেনিদের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণের চিত্র দেখা গেছে। এছাড়া, সৌদি সামরিক ঘাঁটি দখল এবং সেখান থেকে প্রচুর পরিমাণে অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে। ওই অভিযানে সৌদি নেতৃত্বাধীন অন্তত ২০০ সেনা নিহত হয়েছে। হুথি যোদ্ধারা এই অভিযানের নাম দিয়েছে ‘আল্লাহর পক্ষ থেকে বিজয়’।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইয়াহিয়া সারিয়ি 


জেনারেল সারিয়ি জানান, দ্বিতীয় পর্যায়ের অভিযান চালানো হয়েছিল গত ৩ সেপ্টেম্বর। ওই অভিযানে ১৩০টির বেশি আর আর্মার্ড ভেহিকেল ধ্বংস ও দখল এসেছে। তিনি বলেন, ওই অভিযানের সময় ইয়েমেনি সেনাদের ক্ষেপণাস্ত্র ইউনিট অন্তত ছয় দফা অভিযান পরিচালনা করে যার বেশিরভাগই নাজরানের আঞ্চলিক বিমানবন্দরে চালানো হয়। এছাড়া, ইয়েমেনের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি বহু ড্রোন নাজরানের বেশ কয়েকটি জায়গায় অন্তত ১৬ বার হামলা চালিয়েছে।

অভিযানে উদ্ধার করা অস্ত্রের একাংশ'



জেনারেল ইয়াহিয়া সারিয়ি জানান, অভিযানের সময় ইয়েমেনের প্রতিরক্ষা ইউনিট সৌদি আরবের অ্যাপাচি হেলিকপ্টারের ৪০ দফা হামলা এবং জঙ্গিবিমানের অন্তত ছয় দফা হামলা প্রতিহত করেছে। তিনি বলেন, “আমাদের সামরিক বাহিনীর অভিযান বন্ধ হবে না; সশস্ত্র বাহিনী বিভিন্ন ধরনের অভিযান অব্যাহত রেখেছে এবং শত্রুর হামলা মোকাবেলার জন্য আমাদের হাতে প্রচুর অস্ত্র ও গোলাবারুদ রয়েছে।”#

তথ্যসূত্র : পার্সটুডে বাংলা।  
Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: