জুয়েল রানা, সখীপুর প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের সখীপুরে প্রায় ২০দিন ধরে দশম শ্রেণিতে পড়–য়া ছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় রবিবার রাতে ওই ছাত্রীর মা বাদি হয়ে অভিযুক্ত মজিবর (৪২) ও তার স্ত্রী আমেনা বেগমসহ ৪জনের বিরুদ্ধে সখীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে ওই রাতেই অভিযুক্ত মজিবর ও তার স্ত্রী আমেনা বেগমকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সোমবার দুপুরে গ্রেফতারকৃত মজিবর রহমানকে ৫দিনের রিমান্ড চেয়ে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নের ধলীপাড়া গ্রামের ওই ছাত্রীকে স্থানীয় মজিবর নামের এক ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। মজিবরের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় ওই মেয়েটির পরিবার কাউকে কিছু বলতে সাহস পায়নি। এমতাবস্থায় মেয়েটি গত ২৪ ডিসেম্বর স্থানীয় বাজারে যাওয়ার সময় অভিযুক্ত মজিবর রহমান কৌশলে তাকে তুলে নিয়ে যায়। তাকে আটকে রেখে নিয়মিত ধর্ষণ এবং নানাভাবে নির্যাতন চালায়। এঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদি হয়ে রবিবার রাতে অভিযুক্ত মজিবর রহমান ও তার স্ত্রী আমেনা বেগমসহ ৪জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

সখীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমির হোসেন বলেন, ‘সোমবার দুপুরে অভিযুক্ত মজিবরকে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও মজিবরের স্ত্রীকেও আদালতে পাঠানো হয়। ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।’

Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: