জুয়েল রানা, সখীপুর প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো: আমিনুর রহমানের কথা বলে চাঁদাবাজির সময় আমিন আহমেদ আব্বাসী (৪০) নামের এক অখ্যাত পত্রিকার সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে উপজেলার তক্তারচালা এলাকার একটি করাতকলে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের জন্য চাঁদা চাইলে স্থানীয়রা তাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। আমিন আব্বাসী পার্শ্ববর্তী কালিহাতি উপজেলার আউলিয়াবাদ এলাকার হাবিবুর রহমান আব্বাসীর ছেলে। সে নিজেকে সাপ্তাহিক সামাল ও দৈনিক গণতদন্ত পত্রিকার সাংবাদিক হিসেবে পরিচয় দেয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, কথিত ওই সাংবাদিক উপজেলার তক্তারচালা গ্রামের চান মাহমুদের করাতকলে গিয়ে নিজেকে ইউএনও’র লোক এবং সাংবাদিক পরিচয় দেয়। ইউএনও মহোদয় বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের জন্যে ৫ হাজার টাকা চাঁদা চেয়েছেন বলে করাতকল মালিককে ফোন ধরিয়ে দেয়। ফোনের ওপাশ থেকে একজন নিজেকে ইউএনও পরিচয় দিয়ে টাকা দিয়ে দিতে বলে। এ সময় সন্দেহ হলে সখীপুরের ইউএনও আমিনুর রহমান ও প্রেসক্লাবের এক সাংবাদিকের কাছে ফোনে জানতে চাইলে চাঁদাবাজির বিষয়টি ধরা পড়ে। পরে স্থানীয়রা আমিন আব্বাসীকে পিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। রাতে করাতকল মালিক চান মাহমুদ বাদি হয়ে আমিন আব্বাসীর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ফোনের ওপাশ থেকে ইউএনও পরিচয় প্রদানকারী হেলাল উদ্দিনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা করেন।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন বলেন, আসামিকে একদিনের রিমান্ডে আনা হয়েছে। ওই চক্রের সব আসামিদের একে একে গ্রেপ্তার করা হবে।

সখীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আমিনুর রহমান জানান, প্রতারণার বিষয়টি অবগত হওয়ার পর পুলিশকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দেই।

Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: