জাতীয় ডেস্ক :

ফাইল ছবি।  
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশকে উন্নত সমৃদ্ধ করতে হলে গবেষণা প্রয়োজন। নতুন নতুন গবেষণা ও আবিষ্কার না হলে দেশ এগোবে না। তিনি বলেন, আমাদের বিজ্ঞানীদের গবেষণার ফলে আমরা ধান, পাট, শাক-সবজির এত উন্নয়ন করতে পেরেছি। বিজ্ঞান শিক্ষার বিষয়ে এবং এর প্রতি আগ্রহ তৈরি করতে যা কিছু করা প্রয়োজন তা আমরা করছি।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় কর্তৃক বিশ্ববিদ্যালয়/গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন সংস্থার শিক্ষক, বিজ্ঞানী ও গবেষকদের এবং মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ, এনএসটি ও বিশেষ গবেষণা অনুদান ২০১৮ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্ত্রণালয়ের সচিব অনোয়ার হোসেন। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডা. রুহুল হক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশকে উন্নত করতে হলে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন শিক্ষার। এ দেশের মানুষকে শিক্ষা-দীক্ষা দিয়ে গড়ে তুলতে পারলে এর চেয়ে ভালো বিনিয়োগ আর হতে পারে না। ২০৪১সালের মধ্যে আমরা বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে দেখতে চাই। এ জন্য বিভিন্ন সেক্টরে গবেষণা অত্যন্ত জরুরি।

তিনি আশা প্রকাশ করেন, আমাদের ছেলে-মেয়েরা অত্যন্ত মেধাবী। সামান্য সহযোগিতা করতে পারলে তাদের দিয়ে উন্নত যেকোনো আবিষ্কার সম্ভব। তিনি বলেন, বাঙালি জাতি বীরের জাতি। যারা রক্ত দিয়ে দেশ স্বাধীন করতে পারে, ভাষার জন্য আন্দোলন করতে পারে, তাদের কেউ দাবিয়ে রাখতে পারবে না। বীরের জাতি বীরের মতোই মাথা উঁচু করে বাঁচবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের সরকার প্রতিটি সেক্টরে যারা বিশেষ অবদান রাখছে তাদের মূল্যায়ন করছে। আজ যে সকল শিক্ষক, বিজ্ঞানী ও গবেষক, মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ, এনএসটি ও বিশেষ গবেষণা অনুদান পেলেন তারা তাদের কর্মে আরও উৎসাহিত হবেন। ভবিষ্যতে তারা আরও নতুন নতুন গবেষণায় মনোযোগ দেবেন। যা দেশের কল্যাণ বয়ে আনবে এবং দেশকে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিতে বিশেষ অবদান রাখবে।

সূত্র : জাগোনিউজ২৪.কম।  
Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: