জুয়েল রানা, সখীপুর প্রতিনিধি :

টাঙ্গাইলের সখীপুরে দুইশত বছরের পুরাতন পারিবারিক গোরস্থান ঘেষে টয়লেট ও টিউবয়েল নির্মান করায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন এলাকাবাসী। উপজেলার দাড়িয়াপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। এ দিকে স্থানীয়রা ওই গোরস্থানের জমিতে মাটি ভরাট ও সংস্কার করা সময় একটি নাড়িকেল গাছ ও কয়েকটি কলা গাছ কাটায় তার ক্ষতি পূরণ দাবি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই এলাকার আ. জলিল মিয়া।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ৩৫ শতাংশ জমির মধ্যে প্রায় শতাধিক পরিবারের একটি পারিবারিক গোরস্থান ঘেষে দুইটি টয়লেট ও একটি টিউবয়েল নির্মাণ করেছে আ. জলিল মিয়া। গোরস্থানটি সংস্কার ও পরিস্কার করার জন্য একটি নাড়িকেল গাছ ও কয়েকটি কলা গাছ কেটেছে ওই এলাকাবাসী। এ ঘটনায় সখীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন আ. জলিল মিয়া। 

এলাকাবাসী জানায়, সকলের উপস্থিতিতে বারবার এই জমিটি জরিপ করে দেখা গেছে গোরস্থানের জমিতে টিউবয়েল, টয়লেটসহ বিভিন্ন গাছ-পালা রয়েছে। গোরস্থানের জমিতে নির্মানাধীন দীর্ঘদিনের টয়লেট, টিউবয়েল ভাঙ্গা ও অন্যান গাছ গুলো কাটার অনুরুধ করে আসছি আ. জলিল মিয়াকে । এ বিষয়ে ২০০৭ সালে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এক শালিশী বৈঠক ডাকেন সেখানে আ. জলিল মিয়া উপস্থিতি হয় না। এলাকায় কারো কথায় কর্ণপাত করেন না।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ওহাব মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ধর্মীয় দিক বিবেচনা করে গোরস্থান ঘেষে টয়লেট নির্মান করাটা ঠিক হয় নাই। এটা সড়িয়ে ফেলা উচিত।

আ. জলিল মিয়া বলেন, টয়লেট, টিউবয়েল ও অন্যান গাছপালা গোরস্থানের নয় আমার সীমানায় রয়েছে তার পরেও জোরপূর্বক এলাকার কয়েকজন লোক সেই গাছপালা কেটে ফেলেছে। জমির জরিপের কাজ সঠিক হয়নি।

Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: