সখীপুরে ভাতিজার হাতে চাচা খুন  মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

জুয়েল রানা, সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি : 

সখীপুরে ভাতিজার হাতে চাচা মোহাম্মদ আলী শিকদার খুনের ঘটনায় আসামিদের গ্রেফতার ও বিচার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে মানবাধিকার সংস্থা ‘ইউনিট ফর ইউনিভার্স হিউম্যান রাইট্স অব বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন’ ও এলাকাবাসী। গত বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় সখীপুর-ঢাকা সড়কের উপজেলার তক্তারচালা বাজার এলাকায় আন্দোলনকারীরা এ কর্মসূচি পালন করে। ঘন্টাব্যাপি কর্মসূচি চলাকালে ওই সড়কে ঢাকা ও সখীপুরগামী সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে চরম দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা।

বিক্ষোভ ও মানববন্ধন শেষে হাতীবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ সাঈদ আজাদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সবুর রেজা, ইউনিট ফর ইউনিভার্স হিউম্যান রাইট্স অব বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রিয় কমিটির সহসভাপতি আবুল হাশেম দুর্জয়, হাতীবান্ধা ইউপির সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নবীন হোসেন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আতোয়ার রহমান প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা মোহাম্মদের খুনিদের দ্রুত গ্রেফতার করে ফাঁসি কার্যকর ও অপহরণ মামলা না নেওয়ায় মির্জাপুর থানার ওসি মাঈন উদ্দিনের প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

প্রসঙ্গত. পারিবারিক জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে নিজ বাড়ি উপজেলার হতেয়া কাজিপাড়া গ্রাম থেকে সার ও সিমেন্ট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ শিকদারকে বড় ভাই মৃত জামির শিকদারের ছেলে রফিকুল (৩০) ও মেয়ে আছিয়ার ছেলে পনির (২০) মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যায়। পাঁচদিন পর গত মঙ্গলবার সকালে হতেয়া গ্রামের হলিদ্রাচালা এলাকা থেকে তার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রফিকের বড় বোন আছিয়ার ভাষ্য অনুযায়ী রফিকই তার চাচা মোহাম্মদকে চলন্ত মোটরসাইকেলে গলায় গামছা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার স্বীকারোক্তি দিয়েছেন (ভয়েস রেকর্ড সংরক্ষিত আছে)।

নিহত মোহাম্মদ আলীর বড় ছেলে মামলার বাদী হাসান আলী বলেন, মির্জাপুর পুলিশের গাফলতির কারণেই আমার বাবাকে জীবিত উদ্ধার করা যায়নি। গত শনিবার এলাকাবাসী খুনি রফিকের স্ত্রী তারিন ও তারিনের মাকে ধরে মির্জাপুর পুলিশে সোপর্দ করলেও রাতে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। আমরা খুনিদের ফাঁসি চাই।

সখীপুর থানার ওসি মাকছুদুল আলম বলেন, মির্জাপুর থানা প্রয়োজনীয় তথ্যাদি সখীপুর থানায় পাঠালে মঙ্গলবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে খুনের মামলাটি রেকর্ড করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।


Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: