মির্জাপুরে এমএইচ জুট মিল কর্তৃপক্ষের সাথে পল্লী বিদ্যুতের স্বেচ্ছাচারিতা - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭ মির্জাপুরে এমএইচ জুট মিল কর্তৃপক্ষের সাথে পল্লী বিদ্যুতের স্বেচ্ছাচারিতা - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭
বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৭

মির্জাপুরে এমএইচ জুট মিল কর্তৃপক্ষের সাথে পল্লী বিদ্যুতের স্বেচ্ছাচারিতা

মির্জাপুরে এমএইচ জুট মিল কর্তৃপক্ষের সাথে পল্লী বিদ্যুতের স্বেচ্ছাচারিতা

স্টাফ রিপোর্টার :

বিদ্যুৎ বিল বাকি নেই এক টাকাও, কোন সর্তক বাণীও নেই, তারপরও বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দিয়েছে টাঙ্গাইল পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি গোড়াই জোনাল অফিস কর্র্তৃপক্ষ। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এই স্বেচ্ছাচারিতা করেছে মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই শিল্পাঞ্চলে অবস্থিত হা-মীম  গ্রুপের অন্যতম শিল্প প্রতিষ্ঠান এমএইচ জুট মিল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে। এতে মিলটির প্রতিদিন প্রায় তিন লাখ টাকা ক্ষতি হচ্ছে। এছাড়াও মিলটিতে কর্মরত প্রায় আট শতাধিক শ্রমিক কর্মচারী বেকার হওয়ার আশংকায় রয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানান, পল্লী বিদ্যুৎ গোড়াই জোনাল অফিস এমএইচ জুট মিল কর্তৃপক্ষের কাছে এক টাকাও পাওনা নেই। এছাড়া মিলটির বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করণের জন্য জোনাল অফিস কর্তৃপক্ষ কোন আগাম নোটিশও প্রদান করেনি। হঠাৎ গত শনিবার (১৫ এপ্রিল) পল্লী বিদ্যুতের গোড়াই জোনাল অফিস মিলটির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। তারপর থেকে মিলটির উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায়। অবশ্য যাতে কোন শ্রমিক কর্মচারী বেকার হয়ে না পড়ে সেজন্য কর্র্তৃপক্ষ মানবতার দিক চিন্তা করে বুধবার (১৯ এপ্রিল) সকাল থেকে নিজস্ব জেনারেটরের মাধ্যমে কোন রকম মিলটি চালু করেছেন। 

তাও সারাদিন মিলটি চালু রাখা যাবে কিনা তা নিয়ে কর্তৃপক্ষ রয়েছেন সন্দিহানে। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করায় প্রতিদিন মিলটিতে প্রায় তিন লাখ টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে। পাট থেকে সুতা তৈরির এই কারখানায় বর্তমানে আট শতাধিক শ্রমিক কর্মচারী কর্মরত রয়েছেন। মিলটিতে বিদ্যুৎ সংযোগ যদি বিচ্ছিন্ন থাকে তাহলে অনেক কর্মচারী কর্মহীন হয়ে পরবেন বলে কর্মরত শ্রমিক কর্মচারীরা জানিয়েছেন।

এমএইচ জুট মিলের জেনারেল মেনেজার (পার্সেস) কদ্দুস-উল-আলম জানান, সর্বশেষ গত ২১ মার্চ ১ লাখ ২৬ হাজার টাকা বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা হয়েছে। তিনি টিনিউজকে আরও জানান, যদিও মিলটিতে বিদ্যুৎ খরচ অনেক কম হয় তবুও সরকারি নিয়ম মেনে প্রতিমাসে মিনিমাম ১ লাখ ২৬ হাজার টাকা করে বিদ্যুৎ বিল নিয়মিত পরিশোধ করে আসছেন। এছাড়া বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করণের ব্যাপারে কোন আগাম নোটিশ বা মৌখিক সতর্ত বার্তাও দেয়া হয়নি। কেন পল্লী বিদ্যুৎ গোড়াই জোনাল অফিস কর্তৃপক্ষ আমাদের সাথে এ ধরণের আচরণ করছে তা বোধগম্য নয় বলে তিনি উল্লেখ করেন।

পল্লী বিদ্যুৎ গোড়াই জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার সিদ্দিকুর রহমানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মিলের ভেতর দিয়ে যাওয়া পল্লী বিদ্যুতের লাইনের তার ছিরে আছে। এ কারণে এমএইচ জুটি মিল ও ৩২টি আবাসিক গ্রাহককে আগাম নোটিশ প্রদান ছাড়াই বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। মিল কর্তৃপক্ষ পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের লোকজনকে মিলের ভেতর যেতে না দেয়ায় কাজ করতে পারছেন না বলে তিনি উল্লেখ করেন।
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments
Item Reviewed: মির্জাপুরে এমএইচ জুট মিল কর্তৃপক্ষের সাথে পল্লী বিদ্যুতের স্বেচ্ছাচারিতাRating: 5Reviewed By: Tangail Darpan
Scroll to Top