বাজারে ফিরেছে স্বস্তি! পণ্যের দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭ বাজারে ফিরেছে স্বস্তি! পণ্যের দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭
শনিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০১৬

বাজারে ফিরেছে স্বস্তি! পণ্যের দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই

অর্থনীতি ডেক্স :  রাজধানীর কাঁচা বাজারে ফিরেছে স্বস্তি। বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সকল পণ্যের দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই রয়েছে। শুক্রবার রাজধানীর রামপুরা, শান্তিনগর, মালিবাগ এবং কারওয়ান বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। বাজার ঘুরে দেখা যায়, গত সপ্তাহে যেসব সবজি কেজি প্রতি ৪০ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হয়েছে তা আজ (শুক্রবার) বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকায়।   

কারওয়ান বাজারে পাইকারি কাঁচাপণ্যের প্রতিষ্ঠান শান্তা বাণিজ্যালয়ের কর্মকর্তা শামীম আহমেদ জানান, বাজারে শীতের সবজির সরবরাহ বেড়েছে। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিদিনই শতাধিক সবজি বোঝায় ট্রাক বাজারে আসছে। ফলে দাম কমছে।    

রামপুরা কাঁচা বাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা রাসেল মিয়া জানান, চাল কুমড়া, মুলা, বাঁধাকপি, চিচিংগা, শসা, মিষ্টি কুমড়া, বেগুন, বরবটি , পেঁপে ও পটল ৩০ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া করলা ৪০ এবং ফুলকপি পিস প্রতি বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা দরে। 

শাকও বিক্রি হচ্ছে নাগালের মধ্যে, প্রতি আঁটি মুলা শাক ১০ টাকা ও লাল শাক ৫ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। 

প্রতিকেজি কাঁচা মরিচ ১০০ টাকা দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে শান্তিনগর বাজারে। তবে অপরিবর্তিত রয়েছে টমেটোর দাম। 

বিভিন্ন ধরনের চালের দাম কমেছে। কারওয়ান বাজারের প্রতি কেজি মোটা চাল ৩৪ থেকে ৩৫ টাকা,  মিনিকেট ৪৮ থেকে ৫০ টাকা, বি আর (২৮) ৪৪ থেকে ৪৬ টাকা, পারিজাত ৪০ থেকে ৪২ টাকা, নাজিরশাইল ৪৭ থেকে ৪৮ টাকা, গুটি স্বর্ণা ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা, লাল স্বর্ণা ৩৭ টাকা, হাসকি ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা ও লতা ৪১ থেকে ৪২ টাকা দরে বিক্রি হয়।

প্রতিকেজি রুই মাছ মিলছে ১৮০ থেকে ২২০ টাকার মধ্যে। ইলিশের হালি মিলছে ৮০০-১২০০০ টাকায়। তেলাপিয়া বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা কেজি দরে।

পরিবর্তন নেই পেঁয়াজের দামেও। ভারতীয় পেঁয়াজ ৩০ টাকা, দেশি পেঁয়াজ ৩৫ টাকায় বিক্রি হলেও বড় আকৃতির চায়না পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকায়।

এক সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম কমেছে কেজি প্রতি ১০-১৫ টাকা। পাওয়া যাচ্ছে ১৩০ টাকা কেজি দরে যা গত সপ্তাহে ছিল কেজি  প্রতি ১৪০-১৪৫ টাকা। অপরিবর্তিত রয়েছে গরুর মাংসের দাম।

অন্যান্য নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মধ্যে প্রতি কেজি খোলা আটা ৩৪ থেকে ৩৫ টাকা, ২ কেজি ওজনের প্যাকেটজাত আটা ৭০ থেকে ৭২ টাকা, ময়দা ৪২ থেকে ৪৪ টাকা, ২ কেজি ওজনের প্যাকেটজাত ময়দা ৮৮ থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

দেশি মসুর ডাল কেজি প্রতি ১০৫, ক্যাঙ্গারো ১১০ থেকে ১১৫ ও মোটা দানা ৮০ থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

খোলা সয়াবিন লিটার প্রতি ১১০ থেকে ১১৫, ৫ লিটারের বোতল ৫৭৫, পাম ১০৬ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে, দেশি আদা প্রতি কেজি ৯৫ থেকে ১০০, চায়না আদা ৬০ থেকে ৭০, রসুন ১৪০ থেকে ১৫০, শুকনা মরিচ ২০০ থেকে ২৩০ এবং হলুদ ২৯০ থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments
Item Reviewed: বাজারে ফিরেছে স্বস্তি! পণ্যের দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই Rating: 5Reviewed By: Tangail Darpan
Scroll to Top