আন্তর্জাতিক ডেক্স : পণ্য পরিবহণে বাধা সৃষ্টির অভিযোগ তুলে ভারতের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে নালিশ করল নেপাল। নেপালের উপ-প্রধানমন্ত্রী প্রকাশ মান সিং জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুনের সঙ্গে দেখা করে বলেন, ভারতের বাধার ফলে সীমান্ত দিয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষপত্র বোঝাই ট্রাক নেপালে ঢুকতে পারছে না। তাদের ট্রানজিট স্বাধীনতায় যেন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না করা হয় সেজন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

উপ-প্রধানমন্ত্রী প্রকাশ মান সিং নেপালের মতো যেসব দেশের সমুদ্র সীমান্ত নেই, সেই সমস্ত দেশের বাণিজ্য পথ সুগম করার জন্য ভিয়েনা চুক্তি অবিলম্বে কার্যকর করারও দাবি জানিয়েছেন।


সূত্রে প্রকাশ, সীমান্তে অচলাবস্থার জন্য নেপালে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের ঘাটতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন।
নয়াদিল্লির পক্ষ থেকে অবশ্য এ অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে উড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ভারত বলছে, নেপালে নতুন সংবিধান গ্রহণকে কেন্দ্র করে সেদেশের অভ্যন্তরে যে সহিংসতার সৃষ্টি হয়েছে, তার ভয়েই পণ্যবাহী ট্রাক যেতে চাচ্ছে না। নেপাল সরকারকে আগে ওইসব ট্রাকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

গত শুক্রবার নেপালের প্রধানমন্ত্রী সুশীল কৈরালা সীমান্ত বাণিজ্য স্বাভাবিক করার জন্য ভারতের প্রতি আহ্বান জানান। নেপালি কংগ্রেসের সদস্য এবং সেদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবার দাবি, সীমান্ত থেকে অবিলম্বে ভারত অঘোষিত অবরোধ তুলে নিক ভারত।

অন্যদিকে, ভারতকে চাপে রাখতে নেপালের সিনিয়র বামপন্থী নেতা নারায়ণ মান বিজুচকে দেশে জ্বালানি তেলের অভাব মেটাতে ভারতের বদলে চীন থেকে পেট্রোল আমদানি করার প্রস্তাব দিয়েছেন।

নেপালে সম্প্রতি নয়া সংবিধান গ্রহণ এবং তার ভিত্তিতে নেপালকে ৭ টি প্রশাসনিক অঞ্চলে ভাগ করার প্রস্তাব নেয়া হয়। এরপরেই ভারতের উত্তরপ্রদেশ এবং বিহার সংলগ্ন নেপালি এলাকায় বসবাসকারী মদেশি জনগোষ্ঠী প্রতিবাদ আন্দোলন শুরু করেছে। এর ফলে ভারত থেকে নেপালে যাওয়ার পথে কয়েক হাজার পণ্যবাহী ট্রাক আটকা পড়ায় ব্যাপক সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে। নেপালে এখন বিশেষকরে জ্বালানি তেলের তীব্র অভাব দেখা দিয়েছে।

গত সোমবার রাজধানী কাঠমান্ডুতে নেপালি বিক্ষোভকারীরা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কুশপুতুল দাহ করে। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, ভারত নেপালের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে অনধিকার চর্চার পাশাপাশি আর্থিক অবরোধ করে সেদেশের সাধারণ মানুষকে দুর্ভোগে ফেলেছে। সোমবার কাঠমান্ডুতে নেপালি ছাত্ররা ভারতীয় দূতাবাসের সামনে ভারত-বিরোধী স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। নেপালে নতুন সংবিধান গ্রহণকে কেন্দ্র করে ভারত-নেপাল সম্পর্কে ব্যাপক টানাপড়েন সৃষ্টি হয়েছে। নেপালি উপ-প্রধানমন্ত্রী প্রকাশ মান সিংয়ের তৎপরতায় এবার তা পৌঁছে গেল জাতিসংঘের মত আন্তর্জাতিক মঞ্চেও।
- See more at: http://www.bd24live.com/bangla/article/63290/index.html#sthash.BqlnzM2C.dpuf
Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: