টাঙ্গাইলদর্পণডটকম :  ঢাকার কেরানীগঞ্জ মডেল থানা এলাকার বন্দ নজরগঞ্জ গ্রামে মো. এসহাক নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে স্ত্রী ও ছেলেকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল মঙ্গলবার রাত ১টার দিকে নজরগঞ্জ গ্রামের সাচ্চু মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এতে নিহত দুজন হলেন সাহেরা বেগম ও তাঁর ছেলে ফয়সাল।

এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন স্বামী এসহাককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কাল রাতে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া হয় এসহাকের। এর একপর্যায়ে এসহাক স্ত্রী সাহেরা বেগম ও ছেলে ফয়সালকে গলাটিপে জখম করেন। খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন ওই বাড়ি থেকে মা ও ছেলেকে উদ্ধার করে মিটফোর্ড স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এসহাক নেশা করতেন। নেশার টাকা নিয়ে প্রায়ই স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া হতো তাঁর।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, রাতে স্ত্রীর সঙ্গে এসহাকের ঝগড়া হয়। ওই সময় এসহাক তাঁর স্ত্রীকে বেদম প্রহার করেন। এর একপর্যায়ে স্ত্রী ও ছেলেকে গলাটিপে হত্যা করেন তিনি।

ওসি আরো বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা করা হয়নি।


সূত্র : এনটিভি অনলাইন।
Share To:

Tangail Darpan

Post A Comment: