ঘাটাইলে বিদ্যুৎ সংযোগ বাণিজ্যের অভিযোগ ॥ নতুন গ্রাহকরা জিম্মি অসহায় - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭ ঘাটাইলে বিদ্যুৎ সংযোগ বাণিজ্যের অভিযোগ ॥ নতুন গ্রাহকরা জিম্মি অসহায় - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭

728x90 AdSpace

  • Latest News

    Thursday, February 02, 2017

    ঘাটাইলে বিদ্যুৎ সংযোগ বাণিজ্যের অভিযোগ ॥ নতুন গ্রাহকরা জিম্মি অসহায়

    ছবি : প্রতিকি।
    স্টাফ রিপোর্টার : 

    টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে বিদ্যুতের নতুন লাইন টানানোর নামে ৬৫ লাখ টাকার বাণিজ্য হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আর এ বাণিজ্যে জড়িয়ে পড়েছেন প্রকল্পের ঠিকাদার নির্বাহী প্রকৌশলীসহ প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা। জরাজীর্ণ ও পুরাতন বৈদ্যুতের নতুন লাইন টানানো ও সংযোগ দেয়ার নামে চলছে লাখ লাখ টাকার বাণিজ্য।

    জানা যায়, ঘাটাইল পৌর শহরের খরাবর এলাকা আবাসিক স্থাপনার ওপর দিয়ে ১১ হাজার ভোল্টের লাইন টানানোয় দুর্ঘটনার আশংকা থাকলেও কর্তৃপক্ষের নজর নাই। অথচ বিভিন্ন এলাকায় নতুন লাইন র্নিমাণসহ বিদ্যুতের নতুন সংযোগ দেয়ার নামে হাতিয়ে নিচ্ছেন লাখ লাখ টাকা। এদিকে ঝুকিপূর্ণ ও জরাজীর্ণ তার সংস্কার করার জন্য “সেন্টাল জোন” প্রকল্পের আওতায় সাজু এন্টারপ্রাইজ নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ পায়। শহরে ভেতরে পুরাতন কাজগুলো সংস্কার করার দায়িত্ব থাকলেও তারা এ কাজ বাদ রেখে বিভিন্ন গ্রামে টাকার বিনিময়ে বিদ্যুৎ লাইন টানানোর কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সাজু এন্টারপ্রাইজের তদারককারী সেলিম নামে এক ব্যক্তি ও প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ যোগসাজশ করে প্রকল্প পরিচালকের কথা বলে বিভিন্ন গ্রাম থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। সরেজমিনে অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে এসব তথ্য।

    ঘাটাইলের ফকির চালা গ্রামের বাবলু টিনিউজকে জানান, এ গ্রামে বিদ্যুৎ আনতে ১০ লাখ টাকা চুক্তি করা হয়েছিল। ওই গ্রামের বিদ্যুৎ গ্রাহক শামসুল হক টিনিউজকে জানান, তার বাড়িতে বিদ্যুৎ আনতে গুনতে হয়েছে ২৫ হাজার টাকা। একইভাবে আরেক গ্রাহক হারুনুর রশিদও ২৫ হাজার টাকা দিয়েছেন। দেওজানা গ্রামের মাজম আলী টিনিউজকে জানান, তার বাড়িতে বিদ্যুৎ নিতে ১০ হাজার টাকা দিতে হয়েছে। এভবে দেওজানা গ্রামে ৪ লাখ, দেওজানা টাওয়ারে ৩ লাখ, কুশারিয়া গ্রামে ২ লাখ, সংকরপুর গ্রাম থেকে ৩ লাখ, কোনাবাড়ি থেকে ৩ লাখ, বাইচাইল থেকে ৬ লাখ, সন্ধানপুর থেকে ৫ লাখ, চাঁনতারা থেকে নেয়া হয়েছে ৪ লাখ, দিঘর থেকে নেয়া হয়েছে ৫ লাখ।

    হরিপুর এলাকায় ৩টি ইট ভাটায় পল্লী বিদ্যুৎ প্রজেক্ট নির্বাহী প্রকৌশলী যোগসাজশে নতুন লাইন নির্মাণসহ ৩টি ট্রান্সফরমার স্থাপন করে ডিজিটাল মৌ ও সততা ইটভাটা সাড়ে ৯ লাখ টাকার বিনিময়ে নতুন সংযোগ দেন। এছাড়াও রসুলপুর এলাকার ২টি ইটভাটা নতুন লাইন ও ট্রান্সফরমার স্থাপন করে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। আরও একাধিক গ্রাম থেকে বিভিন্ন অংকের টাকা নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

    এসব অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ টিনিউজকে বলেন, টাকা নেয়ার বিষয়ে আমি শুনেছি। তবে আমার কাছে টাকা লেনদেন সম্পর্কে কোনো গ্রাহক কোনো অভিযোগ করেনি। অপরদিকে বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ ঘাটাইলের নির্বাহী প্রকৌশলী সুরেশ চন্দ্র পাল অভিযোগ অস্বীকার করে টিনিউজকে বলেন, আমি বরং ঘাটাইলের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছি।
    • Blogger Comments
    • Facebook Comments
    Item Reviewed: ঘাটাইলে বিদ্যুৎ সংযোগ বাণিজ্যের অভিযোগ ॥ নতুন গ্রাহকরা জিম্মি অসহায় Rating: 5 Reviewed By: Tangaildarpan News
    Scroll to Top