সারাদেশের নির্বাচনী সহিংসতা! - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭ সারাদেশের নির্বাচনী সহিংসতা! - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭
  • Latest News

    বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৫

    সারাদেশের নির্বাচনী সহিংসতা!

    নিউজ ডেস্ক : পৌরসভা নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণা চালানোর সময় বেশ কয়েকটি জায়গায় বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও সমর্থকদের উপর হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। কিশোরগঞ্জে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্প পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ছাড়া ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর নৌকা প্রতীক পুড়িয়ে দেয় প্রতিপক্ষ।

    আমাদের অফিস ও প্রতিনিধিদের পাঠানো বিস্তারিত খবর :

    কুমিল্লা : জেলার লাকসামে পৌর নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর গণসংযোগে ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতাকর্মীরা হামলা চালিয়ে গাড়ি ভাঙচুর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় লাকসামের সাবেক সংসদ সদস্য কর্নেল (অব.) আনোয়ারুল আজিম ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মজির আহমেদকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

    পৌরসভার গাজীমোড়ায় বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

    এদিকে, এ ঘটনার প্রতিবাদে বিএনপির বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা উপজেলার ফতেপুরে সড়কে কাঠের গুঁড়ি ফেলে যান চলাচল বন্ধ করে দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে গুঁড়ি সরিয়ে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

    প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সাবেক সংসদ সদস্য কর্নেল আনোয়ারুল আজিম ও চেয়ারম্যান মজির আহমেদ লাকসাম পৌরসভা বিএনপি মেয়র প্রার্থী শাহনাজ আক্তারের গণসংযোগে অংশ নিতে সকাল ১০টার দিকে গাজীমোড়া পৌঁছান। এ সময় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মো. আবুল খায়ের সমর্থিত উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সিহাব খান ও আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য তাজুল ইসলামের এপিএস মনিরুল ইসলাম রতনের নেতৃত্ব ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা দেশী অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায়। তারা আনোয়ারুল আজিমের গাড়িও ভাঙচুর করে। তাদের বাধা দিতে গেলে আনোয়ারুল আজিম ও মজির আহমেদকে লাঞ্ছিত করা হন।

    এ বিষয়ে কর্নেল (অব.) আনোয়ারুল আজিম দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘বুধবার থেকে বিএনপির প্রচারে বাধা দিচ্ছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। তাই গাজীমোড়ায় গণসংযোগ করতে দেবে না বলে বলে আগেই প্রচার করছিল। সকালে প্রচারে গেলে ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতাকর্মীরা অতর্কিত আমার গাড়ি ভাঙচুর করে। এ সময় তারা সাবেক চেয়ারম্যান মজির আহমেদসহ আমাদের দু’জনকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছে।’

    আওয়ামী লীগের সমথিত মেয়র প্রার্থী মো. আবুল খায়ের দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘আমাদের দলীয় কোনো নেতাকর্মী সাবেক সংসদ সদস্যের গাড়িতে হামলা করেনি। বিএনপির কর্মীরাই তার গাড়ি ভাঙচুর ও তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছে।’

    লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী দ্য রিপোর্টকে জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

    যশোর : যশোর পৌরসভার মেয়র ও আসন্ন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী মারুফুল ইসলামের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। হামলায় মেয়রের সঙ্গে থাকা বিএনপির ছয় নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

    বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে শহরের মিশনপাড়ায় হামলার এ ঘটনা ঘটে।

    হামলার জন্য আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টুর সমর্থকদের দায়ী করেছে বিএনপি।

    বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মারুফুল ইসলামের অভিযোগ, সকালে শহরের মিশনপাড়ায় তিনি ও তার লোকজন নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। এ সময় ২০-৩০ সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তারা দৌড়ে পাশের একটি বাড়িতে আশ্রয় নিলে সেখানে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে সন্ত্রাসীরা। এ সময় অন্তত ছয়জন আহত হন।

    মারুফুল ইসলাম দাবি করেন, নৌকা প্রতীকের সমর্থক চিহ্নিত এসব সন্ত্রাসী তাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই এ হামলা চালায়।

    তিনি জানান, জেলা বিএনপির নেতা রুহুল আমিন, যুবদল নেতা উজ্জ্বল, মনি ও বিটুলকে একটি বেসরকারি ক্লিনিক ও যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

    যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিকদার আককাছ আলী বলেন, ‘বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ও তার লোকজন ধানের শীষ প্রতীকের পক্ষে প্রচারণা চালাতে গেলে দুষ্কৃতকারীরা তাদের ধাওয়া করে। এ সময় তারা পাশের একটি বাড়িতে আশ্রয় নেন। খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল সেখানে গেলে প্রার্থী ও তার লোকজন সেখান থেকে নিরাপদে বেরিয়ে যান।’

    কেউ আহত হয়েছেন কি-না সে ব্যাপারে পুলিশ কিছু জানে না বলে জানান ওসি।

    দুপুরে স্থানীয় প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মারুফুল ইসলাম ঘটনার বর্ণনা দেন। এ সময় দলের কেন্দ্রীয় সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (খুলনা বিভাগ) ও খুলনা মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু উপস্থিত ছিলেন।

    কিশোরগঞ্জ : জেলার করিমগঞ্জে পৌর মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কামরুল ইসলাম চৌধুরী মামুনের নির্বাচনী ক্যাম্প আগুন দিয়ে পুড়ি দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

    পৌর এলাকার গুজাদিয়ার পলাশ মোড়ে বৃহস্পতিবার ভোর ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

    এলাকাবাসী জানান, পৌরসভার গুজাদিয়ার পলাশ মোড়ে ভোরে নৌকা প্রতীকের ক্যাম্পে আগুন জ্বলতে দেখে স্থানীয়রা থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

    কামরুল ইসলাম চৌধুরী মামুন অভিযোগ করে দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল কাইয়ুমের সমর্থকরা বুধবার বিকেলে আমার সমর্থকদের ওপর হামলা করে। আজও তার লোকজন আমার নির্বাচনী অফিস পুড়িয়ে দিয়েছে।’

    এ বিষয়ে আব্দুল কাইয়ুমের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

    করিমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক কুমার মজুমদার জানান, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে ধারণা করেছেন তিনি।

    তবে থানায় এ বিষয়ে এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ নিয়ে আসেননি বলে জানান ওসি।

    ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু পৌরসভার বৈঠাপাড়া গ্রামে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী শাহিনুর রহমানের নৌকা প্রতীক পুড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

    হরিণাকুন্ডু উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মনিরা পারভিন জানান, হরিণাকুন্ডু পৌর এলাকার বৈঠাপাড়া গ্রামে গত রাতে একদল দুর্বৃত্ত আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নৌকা প্রতীকে অগ্নিসংযোগ করে পুড়িয়ে দেয়। এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী শাহিনুর রহমান একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।
    • Blogger Comments
    • Facebook Comments
    Item Reviewed: সারাদেশের নির্বাচনী সহিংসতা! Rating: 5 Reviewed By: Tangaildarpan News
    Scroll to Top