গরমের আরাম, দারুণ পুষ্টিকর ঘোল - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭ গরমের আরাম, দারুণ পুষ্টিকর ঘোল - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭
  • Latest News

    বুধবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৫

    গরমের আরাম, দারুণ পুষ্টিকর ঘোল

    স্বাস্থ্য ডেস্ক : রোদের তীব্রতায় ঘর্মাক্ত, তাপে মাথা যন্ত্রণা। এই সময়ে এক গ্লাস ঠাণ্ডা ঘোলের যেনো বিকল্প নেই। শুধু গরমে আরাম নয়, দারুণ পুষ্টিকর এই পানীয়টি বাস্তবে অনেকটাই অবহেলিত। একসময়ে পুরাণ ঢাকার অলিতে-গলিতে হাঁক দিয়ে ঘোল বিক্রি হতো। তবে এখন আর সেই প্রচলন নেই। পুরাণ ঢাকার বেশ কিছু এলাকায় এখনো ঘোলের দেখা মেলে, কিন্তু খুব সকালে। এছাড়া বিভিন্ন বিপনী বিতানে বোতলজাত ঘোল পাওয়া যায়।

    আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে ঘোলের প্রচুর উপকারিতার কথা রয়েছে। প্রতিদিন একগ্লাস ঘোল খেলে শরীরের ৯টি সমস্যা নিয়ে আর মাথা ঘামাতে হবে না।

    ১. বদহজম দূর করে: অ্যাসিডিটির সমস্যায় জর্জরিত হলে ঘোলের বিকল্প আর কিছু নেই। ভরপেট খাওয়ার পর একগ্লাস ঘোল বদহজমের সমস্যা জটজলদি মিটিয়ে দেয়। বদহজমের ফলে শারীরিক কষ্টও লাঘব করে নিমেষে।

    ২. পেট ঠান্ডা করে: মশলাদার খাবার খাওয়ার পর পেট ব্যথা বা শরীর হাঁসফাঁস করলে রেহাই দিতে পারে একমাত্র ঘোল। পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ঝাল-মশলা খাওয়ার জেরে যে পেট জ্বালা করলে, ঘোলে থাকা প্রোটিন সেই মশলাকে হজম করাতে সাহায্য করে। ফলে শরীরও চাঙ্গা হয়ে যায়।

    ৩. হজম ক্ষমতা বাড়ায়: ঘোলে থাকা মশলা হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। অ্যাসিডিটি দূর করে পেট সুস্থ করে দেয়। প্রতিদিন পান করলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বেড়ে যায়।

    গরমের আরাম, দারুণ পুষ্টিকর ঘোল
    ৪. ভরপুর ক্যালসিয়ামের উৎস: প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য প্রতিদিন ১০০০ থেকে ১২০০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম প্রয়োজন। তাহলে হাড় ও দাঁতের সমস্যা হয় না। এক কাপ দুধে ৩০০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম থাকে। এক কাপ দইতে থাকে ৪২০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম। কিন্তু এক কাপ ঘোলে থাকে ৩৫০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম। অর্থাৎ বড় গ্লাসে একগ্লাস ঘোল খেতে পারলে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি হবে না। ঘোল হজমশক্তি বাড়ায়। ফলে বাড়তি ফ্যাট শরীরে জমতে দেয় না। প্রতিদিন অনেকটা করে ঘোল খেলে ফ্যাট ধীরে ধীরে কমতে থাকে। এটা প্রমাণিত সত্য।

    ৬. পুষ্টিতে ঠাসা: ঘোল খেলে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি হয় না, একই সঙ্গে এতে প্রচুর পুষ্টিকর উপাদানও থাকে। ঘোলে প্রচুর পরিমাণে পটশিয়াম ও ভিটামিন বি থাকে। একাধিক মিনারেলস ও অ্যান্টিঅক্সিড্যান্স সমৃদ্ধ ঘোল শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। ঘুমও ভালো হয়।


    ৭. কোলেস্টেরল, ব্লাড প্রেসার ও ক্যান্সার প্রতিরোধে: গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ঘোলে থাকা নানা অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল উপাদান ব্লাড প্রেসার কমায়। সঙ্গে ক্যান্সারকেও রুখে দেয়।

    ৮. পানিশূন্যতা দূর করে: গরমে সঙ্গে এক বোতল ঘোল রাখতে পারলে শরীর শুষ্ক হয় না। ক্লান্তি দূর করে দেয়। কিংবা খুব গরমে ঘর্মাক্ত হয়ে বাড়ি ফিরে এক গ্লাস ঠান্ডা ঘোল খুব উপকারী।

    ৯. দুধে অ্যালার্জি: দুধে অ্যালার্জি বা ল্যাক্টোজ ইনটলারেন্ট অনেকেই। দুধ খেলেই অ্যাসিডিটি হয়। সেই সব ব্যক্তিদের জন্য ঘোলের বিকল্প নেই। ঘোলের স্বাদে তাঁদের কোনও অসুবিধা হয় না।
    • Blogger Comments
    • Facebook Comments
    Item Reviewed: গরমের আরাম, দারুণ পুষ্টিকর ঘোল Rating: 5 Reviewed By: Tangaildarpan News
    Scroll to Top