নারী-শিশুরা আজ কতটা নিরাপদ, কতটা সুগম তাদের জীবন-পথচলা!!! - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭ নারী-শিশুরা আজ কতটা নিরাপদ, কতটা সুগম তাদের জীবন-পথচলা!!! - Tangail Darpan | Online Bangla Newspaper 24/7 | টাঙ্গাইল দর্পণ-অনলাইন বাংলা নিউজ পোর্টাল ২৪/৭
  • Latest News

    শনিবার, জুন ২৭, ২০১৫

    নারী-শিশুরা আজ কতটা নিরাপদ, কতটা সুগম তাদের জীবন-পথচলা!!!

    মোঃ আব্দুল হামিদ সরকার, টাঙ্গাইল দর্পণ ডটকম : আজ প্রায় সারা বিশ্বেই একটা বড় ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে চলেছে। সমস্যাটা প্রথম পর্যায়ে খুব ছোট বিষয় ও বিবেচনার বিষয় না হলেও বর্তমান সময়ে তা বিরাট আকার ধারণ করছে। এই বড় ধরণের বিপর্যয় সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাড়িয়েছে। কারণ রাষ্ট্র এই বিষয়ে দ্রুত কোন প্রকারের মানানসই সমাধান দিতে পারছেনা। আমরা এতক্ষন যে বিষয় নিয়ে এতগুলো কথা বললাম তা হলো “নারী-শিশুদের উপর যৌনহয়রানী বা শ্রীলতাহানী” হিসেবই আমরা বেশি শুনি। বর্তমান সময় নারীদের জন্য আমরা মুখে বলি তোমাদের জন্য নিরাপদ হোক জীবন যাপন ও স্বাভাবিক পথচলা, আজও কি তারা এই “নিরাপদ” শব্দটির কোন বহিঃপ্রকাশ পেয়েছে। সকলের জবাব একটাই না!, কারণ আমরা পুরুষরা তাদের এই “শিশু-নারীর নিরাপদ জীবনযাপন ও পথচলায়” কোন ধরনের সাপোর্ট বা সহায়তা করতে পারি নাই। আমরা সমাজের জন্য নানাধরনের উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নেই, তবে দুঃখের সাথে বলতে হচ্ছে “শিশু-নারীর নিরাপদ জীবনযাপন ও পথচলায়” সহয়তায় কোন প্রকারের পদক্ষেপ কিংবা প্রতিরোধ কমিটি তৈরীতে পুরোপুরিই ব্যার্থ।

    তবে কি তারা চিরদিনই এভাবেই নির্যাতিত ও অনিরাপত্বাহীনতায় ভ‚গবে। তারাও তো আমাদেরই কারও মা, বোন, স্ত্রী। আমরা সবসময় বলি নারীদের পোষাক বদলাতে, যদি তাই হতো তবে কেন মাঝে মাঝেই শোনা যায় বোরকা পড়া কোন তরুনী যৌনহয়রানীর শিকার হয়েছে। আসল কথা হলো আমাদের পুরুষদের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে হবে।

    আমরা প্রায়ই দেখছি রাস্তা, যানবাহন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, অফিস, নদী এমনকি আমাদের সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয়স্থল নিজেদের বাড়িতেও কোন না কোন নারী-শিশু যৌনহয়রানীর শিকার হচ্ছে। তবে অনেক ঘটনাই তো আমরা জানি না কারন আজ ও সেগুলো জনসম্মুখ্যে কখনও প্রকাশিত হয় নাই। নিজের আপনজন রক্তের সম্পর্কের যারা তারা তো নারী-শিশুদের নিরাপত্তার জন্য দায়িত্ব পালন করবে এটাই স্বাভাবিক, কিন্ত! তারাই যদি এমন সব কান্ড ঘটায় তবে বিবেকের কাছে প্রশ্ন আমরা কি এখনও বলতে পারি আমাদের নিজ বাড়িটিও নিরাপদ! না..না..না..! কারন এখানেও তারা নিরাপদ নয়। তবে তারা কোথায় যাবে, তাদের জন্য আজও কী কোন নিরাপদ স্থান আছে যেখানে তারা নিরাপদে থাকতে ও চলতে পারবে।

    ভাবতে অবাক লাগে যে নারীর কারনে আজ আমরা এই সুন্দর পৃথীবির আলো দেখছি সেই নারীকেই আমরা হিংস্র হায়েনার মতো খুববে খুবরে খচ্ছি! যদি কোন মা আগে থেকেই বুঝত যে তার ছেলে সন্তানটি বড় হয়ে কোন নারী-শিশুর সর্বনাষ করবে তবে তারা জন্মের পরে কিংবা জন্মের আগেই তার ছেলে সন্তানকে জীবিতই মেরে ফেলত। কি কথাটা শুণে একটু অবাক ও আশ্চর্য মনে হলো কি! হ্যা তাই করতো। তবে একটু ভেবে দেখুন তখন কি পুরুষ বলতে কোন প্রাণী এই পৃথিবীতে থাকতো!

    প্রতিদিনই আমরা পত্রিকা খুললে দেখতে পাই একজন নারী-শিশু যৌন হয়রানীর শিকার। নিত্য এমন সংবাদ দেখে মনে হয় যৌনহয়রানী আজ যেন একটা ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে হ্যা আমরা প্রায়ই বলি ওয়েস্টার্ন কালচার এমন কাজে আমাদের (পুরুষদের) উৎসাহ প্রদান করছে। তারা যেন এমন কাজ করার জন্য সুড়সুড়ি দিচ্ছে প্রতিনিয়ত।

    রাষ্ট্রের উচিত প্রতিটি স্তরেই নারী-শিশুদের সতর্ক থাকার জন্য উপদেশ দেওয়া। প্রায় প্রতি সপ্তাহেই একটি করে সেমিনার, সভা ও বিশেষ নাটিকার মাধ্যমে এই বিষয়ে তাদের সচেতনতা বৃদ্ধি করা। তবেই তারা এসম্পর্কে জানবে ও নিজেদের নিরাপদ রাখার জন্য সর্বাত্বক চেষ্টা করতে পারবে। প্রত্যন্ত অঞ্চলে বেশি বেশি নারী ও শিশুর নিরাপত্তামূলক কর্মসূচীর মাধ্যমে সচেতনা বাড়াতে হবে। যেসব সরকারি, এন.জি.ও বা স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান নারী-শিশুর নিরাপত্তা নিয় কাজ করছে তাদের কর্মীসংখ্যা আরও বাড়াতে হবে, প্রয়োজনে সরকারের পক্ষ থেকে একটি বিশেষ ফান্ডতৈরী করে এই সব কর্মসূচীর পরিচালনার জন্য কাজ করতে হবে। তবেই আশা করা যায় পুরোপুরি না হলেও কিছুটা এই সমস্যা হতে রক্ষা পাওয়া যাবে। তবে ধীরে ধীরে এই সমস্যা থেকে একদিন আমরা নিশ্চই মুক্তি লাভ করে পারবো।       
    • Blogger Comments
    • Facebook Comments
    Item Reviewed: নারী-শিশুরা আজ কতটা নিরাপদ, কতটা সুগম তাদের জীবন-পথচলা!!! Rating: 5 Reviewed By: Tangaildarpan News
    Scroll to Top